1. bslbarta@gmail.com : BSL BARTA : Golam Rabbi
প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুসলিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ - বিএসএল বার্তা




প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুসলিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৪৭ বার পড়া হয়েছে

কেশবপুরে পরকিয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কারসহ এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুসলিয়ে নিয়ে গেছে প্রেমিক বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় ওই স্ত্রীর স্বামী রফিকুল ইসলাম সরদার বাদী হয়ে সাবেক কাউন্সিলরসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে কেশবপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সাবদিয়া গ্রামের আজাহার সরদারের ছেলে রফিকুল ইসলাম সরদার বিয়ের পর তার স্ত্রী ময়না বেগমকে বাড়িতে রেখে দীর্ঘদিন ধরে মালেশিয়ায় পাড়ি জমায়। এই সুযোগে একই উপজেলার লুৎফর রহমান মোড়লের ছেলে আব্দুস সালাম মোড়ল মালেশিয়া প্রবাসী রফিকুল ইসলামের বাড়িতে যাতায়াত করতো। যাতায়াত করার কারণে তাদের মধ্যে পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ২৭ নভেম্বর রফিকুল ইসলাম মালয়েশিয়া থেকে তার গ্রামের বাড়িতে চলে আসে। এসে দেখে তার স্ত্রী ময়না বেগম আর ঘরে নেই। এসময় তার ভাইসহ স্থানীয় লোকজনদের নিয়ে ভোগতী নরেন্দ্রপুর গ্রামে তার শ্বশুর সিদ্দিক সরদারের বাড়িতে যায়। সেখানেও যেয়ে তার স্ত্রীকে খুজে না পেয়ে সে আবার বাড়িতে চলে আসে। বাড়িতে এসে জানতে পারে আব্দুল সালাম মোড়লের সঙ্গে ময়না বেগমের পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গত ২৭ নভেম্বর রফিকুল ইসলাম মালেশিয়া থেকে তার নিজ বাড়িতে আসবে বলে এই সংবাদ তার স্ত্রীকে বলে। ওই দিন সকাল ৯টার দিকে রফিকুল ইসলামের গচ্ছিত নগদ ৫ হাজার টাকা ও ৩ ভরি বিভিন্ন প্রকারের স্বর্ণের অলঙ্কার নিয়ে স্ত্রী ময়না বেগম আব্দুস সালামকে নিয়ে অজানার উদ্দ্যেশ্যে পাড়ি জমায়।

অভিযোগে আরও উল্লেখ রয়েছে সাবদিয়া গ্রামের মৃত মকছেদ আলী মোড়লের ছেলে সাবেক কাউন্সিলর শওকত হোসেন, মৃত আছির উদ্দিনের ছেলে লুৎফর রহমান মোড়ল, হাবিল মোল্যার স্ত্রী জেসমিন বেগমের সহযোগিতায় ও পরামর্শে রফিকুল ইসলামের নগদ গচ্ছিত টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার আত্মসাৎ করার জন্য স্ত্রী ময়না বেগমকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ফুসলিয়ে নিয়ে গেছে প্রেমিক আব্দুস সালাম মোড়ল। এব্যাপারে সরাসরি আব্দুস সালাম মোড়লের বক্তব্য নেওয়ার জন্য তাদের বাড়িতে গেলে তাকে না পেয়ে তার পিতার কাছে জানতে চাইলে তার পিতা সাংবাদিকদের জানান, আমার ছেলে কোথায় গেছে আমরা জানি না।

এব্যাপারে কেশবপুর থানার এস আই ফজলে রাব্বী বলেন, রফিকুল সরদার বাদী হয়ে থানায় ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত অব্যাহতসহ তাদেরকে উদ্ধারের অব্যহত রয়েছে।

জি এস




নিউজটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর..






















© All rights reserved © 2019 bslbarta.com
Customized By BSLBarta Team