1. bslbarta@gmail.com : BSL BARTA : Golam Rabbi




অনলাইনে কোরবানির গরু বিক্রি করে সফল গাজীপুরের হ্যান্ডশেক এগ্রো লিমিটেডের তরুণ উদ্যোক্তা’রা

গাজীপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০
  • ৪১৯ বার পড়া হয়েছে
গাজীপুরের কাপাসিয়ার কড়িহাতা ইউনিয়নের ইকুরিয়া বাজার এলাকায় দেশি গরুর সফল খামার হিসেবে পরিচিত লাভ করেছে তরুণ উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান হ্যান্ডশেক এগ্রো প্রাঃ লিমিটেড।
হ্যান্ড শেক এগ্রো প্রাঃ লিমিটেড প্রতিষ্ঠানটি গরু হৃষ্টপুষ্ট করে সেগুলো কোরবানির ঈদে বিক্রি করে। তবে গরু গুলো সাধারণ কোনও হাটে নয়, বিক্রি হচ্ছে অনলাইনে। আর এজন্য আর্থিক স্বচ্ছলতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে হ্যান্ডশেক এগ্রো প্রাঃ লিমিটেডের সকল সদস্যবৃন্দ।
হ্যান্ডশেক এগ্রো প্রাঃ লিমিটেডের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান ভূঁইয়া রুবেল বলেন, এবার কোরবানির ঈদে আমরা ৫০ টি গরু প্রস্তুত করেছি। এর মধ্যে ২২ টি গরু বিক্রি হয়ে গেছে। যা আমরা অনলাইন ও সরাসরি লাইভ ওয়েট বিক্রি করেছি। লাইভ ওয়েট ৩৬৫ থেকে ৩৮০ পার কেজি হিসেবে বিক্রি করা হয়েছে। এবারের ষাঁড়গুলোর ছবি তুলে সঙ্গে বিক্রয়মূল্য দিয়ে আগেই অনলাইনে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে অনেক সাড়াও পাচ্ছি। এখানে কোরবানির গরু আগে থেকে ক্রয় করে ঈদের সময়ে নেওয়ার সুযোগ আছে। তাতে গরু ক্রয় করে ঈদের আগের কয়েকদিন খাওয়া ও রাখার বিড়ম্বনা পোহাতে হয় না ক্রেতাদের।
তিনি জানান, তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবে প্রথমে আমি ১.পিইউএম (PUM, Netherlands) নেদারল্যান্ডস এবং বিডিএফএ এর যৌথ আয়োজনে ডেইরি ফার্মিং ম্যানেজমেন্ট এর উপর চার দিনের প্রশিক্ষণ কোর্সসহ, ২.ফুড এন্ড এগ্রিকালচার অর্গানাইজেশন অব দ্যা ইউনাইটেড ন্যাশনস (FAO) এর আয়োজনে দুই দিনের গবাদিপশুর খাদ্য ব্যবস্থাপনার উপর প্রশিক্ষণ, ৩.বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউট, সাভার ও বিডিএফএ এর যৌথ আয়োজনে সাইলেজ, টিএমআর, ইউএমএস তৈরির উপর প্রশিক্ষণ ,৪.কাপাসিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের আয়োজনে সঠিক উপায়ে গরু হৃষ্টপুষ্ট করনের উপর তিনদিনের প্রশিক্ষন গ্রহণ করি। যা আমাকে অনেক অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে প্রতিষ্ঠান কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য।
তিনি আরো জানান, আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটিতে কাপাসিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসমত আরা ম্যাম এসে আমাদের পরামর্শ দেন। তাদের দেখানো দিক নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।
হ্যান্ডশেক এগ্রো প্রাঃ লিমিটেড অন্যতম উদ্যোক্তা ও পরিচালক মোঃ মাহফুজুর রহমান মামুন বলেন, আমিষের চাহিদা পূরণে এবং স্বাস্থ্য সম্মত মাংস উৎপাদন ও দেশের মধ্যে স্বনামধন্য মাংস উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গড়াই আমাদের একমাএ লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। আমাদের প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তরুনদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে চাই। ইতিমধ্যে আমাদের খামারের কার্যক্রম দেখে অনেকেই পরামর্শ নিয়েছেন। বর্তমানে এই গ্রামে আরো দুটি এগ্রো প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। আমাদের উদ্যোক্তা কমিউনিটির মধ্যে একটা বিষয় প্রতিষ্ঠা করতে চাই যা হলো- ‘দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ’। আমরা আমাদের কাজের মাধ্যমে আমাদের পুরো কাপাসিয়াকে এই আওতায় আনতে চাই।
উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আনিসুর রহমান জানান, কাপাসিয়া উপজেলায় মোট খামারির সংখ্যা ১ হাজার ৫২০টি। তবে এদের মধ্যে প্রান্তিক খামারিও রয়েছে। তাদের মধ্য থেকে এবার সর্বমোট ৮ হাজার ৩৬০টি কোরবানির পশু বিক্রির জন্য উপযোগি করা হয়েছে। উপজেলায় সবচেয়ে বড় গরুর খামারি হ্যান্ড শেক এগ্রো লিমিটেড তারা খামারে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে গরু হৃষ্টপুষ্ট করেন। আমরা তার খামার সবসময় তদারকি করি। তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিই।




নিউজটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর..






















© All rights reserved © 2019 bslbarta.com
Customized By BSLBarta Team