1. bslbarta@gmail.com : BSL BARTA : Golam Rabbi
রাজাপুরে ইউপি সদস্যকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ - বিএসএল বার্তা




রাজাপুরে ইউপি সদস্যকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ১০ জুন, ২০২০
  • ৪৬ বার পড়া হয়েছে
ছবি সংগৃহীত

ঝালকাঠির রাজাপুরে মোসাঃ কুরছিয়া বেগম (৩৮) নামে এক গৃহকর্তী নিজে কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে প্রতিপক্ষ মহিলা ইউপি সদস্য মোসাঃ নাজমা আক্তার মুক্তাসহ তার পরিবারকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুরে উপজেলা সদরের বাইপাস মোড় সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে। নাজমা আক্তার মুক্ত ঐ এলাকার মোঃ মজিবুর রহমান মৃধার স্ত্রী ও রাজাপুর সদর ইউনিয়নের (১,২,৩ নং ওয়ার্ড) ইউপি সদস্য।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী হাচান, মরিয়ম বেগম, কল্পনা বেগম এর কাছ থেকে জানাগেছে, জমিজমা নিয়ে প্রতিবেশী কুরছিয়া ও ইউপি সদস্যের স্বামী মজিবর মৃধার মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার দিন বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কুরছিয়া ও তার স্বামী মোতালেব হাওলাদার বাশঁ দিয়ে বাউন্ডারি ঘেরাউ বেড়া দিতে ছিল। হঠাৎ বাশেঁর এক মাথা ছুটে গিয়ে কুরছিয়ার মাথায় লেগে রক্তাক্ত জখম হয়। পরে কুরছিয়া রাজাপুর থানা পুলিশের কাছে গিয়ে মৌখিক অভিযোগে জানায় ইউপি সদস্যের স্বামী মজিবর মৃধা বাশেঁর অপর মাথায় ধাক্কা দিলে তার মাথায় লেগে সে আহত হয়। কুরছিয়া বেগম রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

কুরছিয়া বেগমের বর্তমান স্বামী মোঃ মোতালেব হাওলাদার জানায়, তার স্ত্রী কুরছিয়া বেগম বাশঁ দিয়ে বাথরুমে ভাঙ্গা বেড়া ঠিক করতে ছিল। বাশেঁর এক মাথা মজিবর মৃধা বাড়ির বিতরে চলে গেলে মজিবর মৃধা বাশেঁর মাথা সরিয়ে নেয়ার জানায়। এ সময় মজিবর মৃধা না দেখেই বাশেঁর ঐ মাথায় ধাক্কা দিতে পারে যা কুছিয়ার মাথায় লেগে কেটে যায়।

ইউপি সদস্যের স্বামী মোঃ মজিবুর রহমান মৃধা জানায়, ১৯৯৯ ও ২০০০ সালে পৃথক দুইটি দলিলে মৃত আব্দুল লতিফ সিকদারের ওয়ারিশদের কাছ থেকে সরেজমিনে ১০ শতক জমির মধ্য থেকে ৮ শতাংশ ক্রয় করি। পরে বসতঘর তোলার সময় প্রতিপক্ষ কুছিয়া তার লোকজন নিয়ে বাধা দেয় এবং সাড়ে ৫ শতাংশের মধ্যে বসতঘর নির্মান করি। বাকি আড়াই শতক উদ্ধার করতে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। কিন্তু কুরছিয়া তার স্বামীকে নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাদের সাথে হয়রানিমূলক আচরন করে আসছে। ইউপি সদস্য মোসাঃ নাজমা আক্তার মুক্তা জানায়, কুরছিয়া বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাদের হয়রানী করে আসছে। কুরছিয়া ও তার স্বামী আমাদের পাশে থেকে দীর্ঘদিন থেকে অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে সমাজ নষ্ট করছে। এখন ছেলে-মেয়ে নিয়ে এখানে বস-বাস করা খুব কঠিন হয়ে পরেছে। বেশির ভাগ সময় ছেলে-মেয়েরা বাসায় একা থাকে। বর্তমানে ছেলে-মেয়েদের বাসায় রেখে দুশ্চিন্তায় থাকতে হয়।

রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগে কর্ত্যরত চিকিৎসক ডাক্তার মাহজাবীন জানান, কুরছিয়া বেগমের মাথায় আঘাত পেয়ে সামান্য একটু কেটে গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এই ঘটনায় রাজাপুর থানার তদন্তকারি অফিসার মোঃ শাহজাদা জানান, উপস্থিত স্বাক্ষীদের কথা শুনে জানাগেছে বেড়ায় বাশঁ বাধার সময় কুরছিয়ার হাত থেকে বাশঁ পড়ে সে মাথায় আঘাত পায়। এটা একটা দুর্ঘটনা।




নিউজটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর..






















© All rights reserved © 2019 bslbarta.com
Customized By BSLBarta Team