সিরাজদিখানে মাস্ক তৈরির ধুম

59

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি সনাক্ত হওয়ার পর মাস্কের চাহিদা বেড়েছে। ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের পূর্ব রাজদিয়া গ্রামের টেংগুরিয়া মোড় সংলগ্ন ক্যাপ তৈরির কারখানায় মাস্ক তৈরির ধুম পড়েছে।

ওই কারখানার মালিক কর্মচারীরা মাস্ক তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন এখন। গত শনিবার সকালে টেংগুরিয়া পাড়া মোড়ে অবস্থিত এস.এ গার্মেন্টসে গিয়ে দেখা যায়, কারখানাটির কর্মচারীরা মাস্ক তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। জেলার পার্শ্ববর্তী ঢাকা জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ব্যবসায়ী ও হকাররা মাস্ক কিনে নিয়ে যাচ্ছে এখান থেকে।

এস.এ ক্যাপ কারখানার মালিক শামীম বেপারী ও রুহুল আমিন বেপারী বলেন, ‘আমার কারখানায় মাথার ক্যাপ তৈরি করা হয়। কিন্তু মাস্কের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় সপ্তাহ খানেক ধরে আমি ও আমার কারিগররা মিলে মাস্ক তৈরি করছি। প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১ হাজার থেকে ১২শ মাস্ক তৈরি করছি।

তবে আমাদের এখানে তৈরি করা বেশীর ভাগ মাস্ক ঢাকায় আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিয়ে বিক্রি করছি। তিনি জানান, এখানে দুই ধরনের মাস্ক তৈরি করা হচ্ছে। এক ধরনের মাস্ক প্রতি পিস ১০ থেকে ১১ টাকা, আরেকটু উন্নত মানের মাস্ক প্রতি পিস ১৩ থেকে ১৪ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।